আজ রবিবার, ২১ Jul ২০১৯, ১০:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
«» ডেঙ্গুতে বিভিন্ন জেলায় বহু মানুষ আক্রান্ত «» সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রতিদিন ভর্তি হচ্ছে অর্ধশত ডেঙ্গু রোগী «» ডেঙ্গু প্রতিরোধে সিটি কর্পোরেশন সমীপে কিছু কথা «» সিজারে নবজাতকের মৃত্যুর গুজব: কী ঘটেছিল সেদিন? «» কমিউনিটি ক্লিনিকে আপনাকে স্বাগতম! দুঃখিত, এখানে কোন ডাক্তার নেই! «» গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে ফেলা রাখা শিশুর দায়িত্ব নিল “চাইল্ড এন্ড ওল্ড এইজ কেয়ার” «» সেই ওসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের সুপারিশ «» ভুটানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নিয়োগে আবেদন আহ্বান «» ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসকের মায়ের মৃত্যু «» স্বাস্থ্য অধিদপ্তরই যেন মশা উৎপাদনের কারখানা

ডেঙ্গু থেকে নিরাপদ থাকার উপায়

বর্ষা শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। দিনের বেলায় এডিস মশার কামড়ে এই মারাত্মক জ্বরে আক্রান্ত হয় মানুষ। জ্বর, মাংসপেশিতে ব্যথা, দুর্বলতা সব মিলিয়ে ডেঙ্গুতে রোগী মারাও যায়। তাই ডেঙ্গু প্রতিরোধে সতর্কতা জরুরি। যেমন-

ফুল হাতা জামা পরুন : যেহেতু খোলা হাত ও পায়ে মশা বেশি কামড় দেয়, তাই নিজেকে রক্ষা করতে সব সময় ফুল হাতা জামাকাপড় পরতে হবে আপনাকে।

বদ্ধ পানি সরিয়ে ফেলুন : বর্ষা মৌসুমে সবচেয়ে বড় একটি বিষয় হলো- বৃষ্টির পানি ফুলের টব, গামলা বা অন্য পাত্রে জমে থাকে। সেখানে ক্ষতিকর সব মশা ডিম পেড়ে বংশ বিস্তার করে। তাই ঘরের আশেপাশে কোনো জায়গায় পানি বেশিদিন জমে থাকতে দেবেন না।

মশা তাড়ানো গাছ লাগান : ডেঙ্গু প্রতিরোধে আরেকটি ভালো উপায় হলো ঘরের পাশে মশা তাড়ানো গাছ লাগানো। তুলসি গাছ, সাইট্রোনেলা, লেমনগ্রাস এক্ষেত্রে ভালো পছন্দ হতে পারে।

ঘরোয়া উপায় : রান্নাঘরের কিছু উপকরণ ডেঙ্গু প্রতিরোধে ভূমিকা রাখতে পারে। কর্পুর জ্বালানো বেশ উপকারী। সরিষার তেলের সঙ্গে মৌরি মিশিয়ে ঘরের চারপাশে ছিটিয়ে দিলে মশা দূর হয়। এক্ষেত্রে নিম, লেভেন্ডার বা ইউক্যালিপ্টাসের তেলও উপকারী।

ডাস্টবিন পরিচ্ছন্ন ও ঢেকে রাখা : ঘরে থাকা ডাস্টবিন বা গামলায় যদি ময়লা আবর্জনা থাকে, তাহলে তা জীবাণু ও মশাকে আকর্ষণ করে। তাই ডাস্টবিন সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে। বাসার পাশের বাগান ও পার্শ্ববর্তী এলাকাও পরিষ্কার রাখুন।

মশা প্রতিরোধক ব্যবহার করুন: সব সময় ঘরে কয়েল বা স্প্রে ব্যবহার করা উচিত। এতে মশা ঘরে থাকবে না। সম্ভব হলে ঘরের ভেতরে বা বাইরে থাকা অবস্থায় শরীরে মশা দূরকারী ক্রিম ব্যবহার করুন। বিশেষ করে শিশুদের শরীরে মশা দূরকারী ক্রিম ব্যবহার করা উচিত।

দরজা-জানালা বন্ধ রাখুন : সন্ধ্যার সময় মশা সহজে ঘরে প্রবেশ করে। দিনে সূর্যের আলো ঘরে প্রবেশ করার জন্য দরজা-জানালা খুলে রাখা হয়। ফলে মশাও ঘরে প্রবেশ করার সুযোগ পায়। বর্ষা মৌসুমে ঘরের দরজা-জানালা যত বেশি সম্ভব বন্ধ রাখুন। সম্ভব হলে দিনে মশারির নিচে থাকতে পারলে আপনি নিরাপদে থাকবেন ডেঙ্গুর জীবাণুবাহী মশা থেকে।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :