আজ বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
«» “একজন স্বেচ্ছাসেবী,নিয়মিত রক্তদাতা সাদিয়া ক্যান্সারে আক্রান্ত, আর্থিক ভাবে সকলেই এগিয়ে আসুন”  «» ইউনানী/হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার-ফার্মাসিস্ট সহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে বিশাল নিয়োগ «» ঢামেকে ব্রাদার ও মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের সংঘর্ষে আহত ২৫ «» আগামী সাতদিন খুবই চ্যালেঞ্জিং : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর «» বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থোপেডিক হাসপাতাল নিটোরের গল্প «» শুকরের চর্বিতে উৎপাদিত তেলে আক্রান্ত হচ্ছে আমাদের হৃদপিণ্ড! «» প্রাকৃতিক উপায়ে এডিস মশা থেকে মুক্তির উপায় «» ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত নতুন রোগী প্রায় ২ হাজার «» স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী «» এবার ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসক লাঞ্ছিত

ভালো বেতনে ভুটানে ২৪ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের চাকরির সুযোগ

বাংলাদেশ থেকে মোটা অংকের টাকা বেতনে ২৪ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসককে ভুটানে নিয়োগ দেওয়া হবে। গত এপ্রিল মাসে ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকালীন সময়ে বাংলাদেশ সরকার ও ভুটান সরকারের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকের পরিপ্রেক্ষিতে এই চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে।

বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ পদের মধ্যে সাব স্পেশালিস্ট চারজন (নিউনেটোলজিস্ট নেফ্রোলজিস্ট, গাইনি অনকোলজিস্ট ও ভ্যাট রেটিনা স্পেশালিস্ট), জেনারেল স্পেশালিস্ট ২০ জন (অ্যানেসথেসিওলজিস্ট একজন, জেনারেল সার্জন ৫ জন, অর্থোপেডিক সার্জন একজন, মেডিসিন স্পেশালিস্ট একজন, প্যাডিট্রিসিয়ান চারজন ও গাইনোকোলজিস্ট একজন) নিয়োগ দেওয়া হবে।

সব বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের বেতন পাঁচ হাজার ডলার সেই সঙ্গে থাকবে বাড়ি ভাড়া। জেনারেল স্পেশালিস্ট এদের বেতন ৪ হাজার ৫০০ ডলার ও সেই সাথে বাড়ি ভাড়াও পাবেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশ সরকারের বিএমডিসি কর্তৃক স্বীকৃত কোনো মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রিধারী হতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিএমডিসি স্বীকৃত স্নাতকোত্তর ডিগ্রি থাকতে হবে।

এমবিবিএস ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রির বিএমডিসি রেজিস্ট্রেশন সনদ হালনাগাদ থাকতে হবে। যেকোনো সরকারি স্বীকৃত আধা সরকারি বা বেসরকারি কলেজ-হাসপাতাল-প্রতিষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে ন্যূনতম দুই বছর থেকে পাঁচ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ইমার্জেন্সী ডিউটি এবং নিয়োগকর্তার চাহিদা মোতাবেক ভুটানের যেকোনো শহরে কাজ করার মানসিকতা থাকতে হবে। চাকরিতে যোগদানের বিমান ভাড়া ও সন্তোষজনক চাকরি শেষে দেশে ফেরত আসার বিমান ভাড়া নিয়োগকর্তাকে বহন করতে হবে। প্রার্থীর নিজস্ব ব্যতীত পরিবারের ব্যয় ভুটান সরকার বহন করবে না। আবেদনকারীর প্রশিক্ষণ অভিজ্ঞতা প্রকাশনা ইত্যাদির ভিত্তিতে সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করা হবে এই সংক্ষিপ্ত তালিকার ভিত্তিতে মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রয়োজনের নিরীখে নিয়োগ কমিটি যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা রাখে এবং নিয়োগ কমিটির সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :