আজ বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
«» “একজন স্বেচ্ছাসেবী,নিয়মিত রক্তদাতা সাদিয়া ক্যান্সারে আক্রান্ত, আর্থিক ভাবে সকলেই এগিয়ে আসুন”  «» ইউনানী/হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার-ফার্মাসিস্ট সহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে বিশাল নিয়োগ «» ঢামেকে ব্রাদার ও মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের সংঘর্ষে আহত ২৫ «» আগামী সাতদিন খুবই চ্যালেঞ্জিং : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর «» বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থোপেডিক হাসপাতাল নিটোরের গল্প «» শুকরের চর্বিতে উৎপাদিত তেলে আক্রান্ত হচ্ছে আমাদের হৃদপিণ্ড! «» প্রাকৃতিক উপায়ে এডিস মশা থেকে মুক্তির উপায় «» ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত নতুন রোগী প্রায় ২ হাজার «» স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী «» এবার ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসক লাঞ্ছিত

বন্যা কবলিত এলাকায় চিকিৎসক-নার্সদের ছুটি বাতিল

সারাদেশে বন্যা পরিস্থিতি অবনতি এবং বন্যা কবলিত এলাকায় নানা রোগব্যাধি ছড়িয়ে পড়ায় সংশ্লিষ্ট এলাকা সমূহের স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সকল চিকিৎসক-নার্সসহ কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। একইসঙ্গে বন্যা কবলিত এলাকার পরিচালক (স্বাস্থ্য) এর কার্যালয়, সিভিল সার্জনের কার্যালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ে কন্ট্রোলরুম খুলতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও বন্যার্তদের জন্য প্রাথমিক চিকিৎসার সকল সরঞ্জামাদিসহ প্রয়োজনীয় সংখ্যক মেডিকেল টিম গঠন করে সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রাখতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) ডা. শহিদ মো. সাদিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের (১৬ জুলাই) এক সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক দেশের বিভিন্ন এলাকায় বন্যার কারণে বিভিন্ন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিতে পারে। তাই সংশ্লিষ্ট বন্যা কবলিত এলাকা সমূহে স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সকল চিকিৎসক/ কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল করা হলো এবং নিন্মেবর্ণিত নির্দেশনা অনুসরণ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

নির্দেশনা সমূহ:

১. স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কন্ট্রোলরুমের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখতে হবে। (টেলিফোন নাম্বার: ০২-৯৮৫৫৯৩৩, হট লাইন: ০১৭৫৯-১১৪৪৮৮)

২. বন্যা কবলিত এলাকার পরিচালক (স্বাস্থ্য) এর কার্যালয়, সিভল সার্জনের কার্যালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ে কন্ট্রোলরুম খুলতে হবে।

৩. বন্যা কবলিত এলাকায় দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় কমিউনিটি ক্লিনিক সমূহকে একযোগে কাজ করতে হবে।

৪. প্রাথমিক চিকিৎসার সরঞ্জামাদিসহ প্রয়োজনীয় সংখ্যক মেডিকেল টিম গঠন করে সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রাখতে হবে।

৫. স্থানীয় প্রশাসনের সাথে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ কর্তৃক গঠিত কন্ট্রোলরুমের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ ও সমন্বয় করতে হবে।

৬. বন্যা কবলিত এলাকার প্রতিটি স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে পর্যাপ্ত পরিমান পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ও অন্যান্য ওষুধ সামগ্রী মজুদ রাখতে হবে।

⇒ বিজ্ঞপ্তি

বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি:

সারাদেশে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। একই সঙ্গে বন্যা কবলিত এলাকায় শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহ (আরটিআই), চোখের প্রদাহ ও চর্মরোগসহ নানা রোগব্যাধি ছড়িয়ে পড়ছে। সোমবার কুড়িগ্রাম, জামালপুর ও শেরপুরে পানিতে ডুবে ১০ শিশু মারা গেছে। এ নিয়ে গত ৭ দিনে বিভিন্ন রোগবালাই ও পানিতে ডুবে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরে হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার জানান, (১০ জুলাই) থেকে আজ মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) পর্যন্ত বন্যা কবলিত এলাকায় পানিতে ডুবে, বজ্রপাতে ও ও সাপের কামড়ে মোট ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগব্যাধিতে মোট এক হাজার ২২৫ জন আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন রোগে ৬৭২ জন আক্রান্ত ও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এসব এলাকায় টিউবওয়েল ডুবে যাওয়ায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির সংকট। ফলে ডায়রিয়াসহ নানা পানিবাহিত রোগবালাই ছাড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ডা. আয়েশা আক্তার বলেন, বর্তমানে দেশের নেত্রকোনা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, বগুড়া, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, সিলেট, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও জামালপুরে বন্যা দেখা দিয়েছে। গত ১০ জুলাই থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতর এই ১৬ জেলার রোগব্যাধি সম্পর্কে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছে।

তিনি আরও জানান, এই ১৬ জেলার ৫৩টি উপজেলার ২০৯টি ইউনিয়ন বন্যায় আক্রান্ত। এসব এলাকায় মোট আশ্রয়কেন্দ্রের সংখ্যা এক হাজার ২৬৯টি। বর্তমানে ১৬ জেলায় এক হাজার ৫৪৩টি মেডিকেল টিম কাজ করছে। গত ছয় দিনে আক্রান্ত জেলাগুলোতে ৪২৮ জন ডায়রিয়া, ১৮৯ জন আরটিআই, ৭ জন বজ্রপাতে, ১০ জন সাপের কামড়ে, ৪ জন পানিতে পড়ে, ১১৪ জন চর্মরোগে, ৪৯ জন চোখের প্রদাহ, ১৫ জন আঘাতপ্রাপ্ত ও অন্যান্য রোগে ৪১২ জন আক্রান্ত হন। তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :