আজ বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:২১ অপরাহ্ন

ডেঙ্গু আক্রান্তদের ঈদে বাড়ি না যাওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তদের বাড়ি না যাওয়ার পরামর্শ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখতে হয়। অনেক গ্রাম্য এলাকায় প্রশিক্ষণ চিকিৎসক থাকেন না। সেক্ষেত্রে সুচিকিৎসার অভাবে প্রাণহানির মতো দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এমন আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না।

শনিবার চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতিত নিয়ে গণমাধ্যমকে দেয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, আর মাত্র কয়েকদিন পরে পবিত্র ঈদুল আজহা। ঢাকা ছেড়ে নাড়ির টানে গ্রামের বাড়িতে পরিবার পরিজন নিয়ে অনেকেই যাওয়ার পরিকল্পনা করছে। কিন্তু বর্তমানে চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতিতে গ্রামের বাড়িতে ঈদ করতে যাওয়ার ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। এ অবস্থায় বাড়িতে না যাওয়াই ভালো।

এর কারণ হিসাবে তিনি বলেন, ডেঙ্গুবাহী এডিস মশার কামড় খেয়ে জ্বর নিয়ে কেউ গ্রামে গেলে এবং ওই আক্রান্ত ব্যক্তিকে গ্রামের মশা কামড়ালে সেই মশার মধ্যে ডেঙ্গু সংক্রমিত হয়ে অন্যরাও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হবে। সে কারণে জ্বর নিয়ে গ্রামে ঈদ করতে যাওয়া মানে অন্যকেউও বিপদে ফেলা।

স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, আমরা বিভাগীয় পরিচালক ও সিভিল সার্জনের মাধ্যমে সেখানকার হাসপাতালে চিকিৎসারত ডেঙ্গু রোগীদের সঙ্গে আলাপ করে জানতে পেরেছি যে, বেশিরভাগ ডেঙ্গু রোগী ঢাকা থেকে জ্বর নিয়ে বাড়িতে গিয়ে ডেঙ্গু ধরা পড়েছে। এ কারণেই আমরা আসন্ন ঈদে রাজধানীর বাস ঈদের বিশেষ করে যাদের জ্বর থাকবে তাদেরকে গ্রামে ঈদ করতে না যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি।

রাজধানীর বাইরে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা জানতে চাইলে তিনি বলেন, রাজধানী ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিভাগীয় হাসপাতালে এখন পর্যন্ত (২৭ জুলাই পর্যন্ত) মোট ৩৭৩ ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন। তার মধ্যে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১২৮ জন। অবশিষ্ট রোগীরা চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :