আজ বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০১:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
«» “একজন স্বেচ্ছাসেবী,নিয়মিত রক্তদাতা সাদিয়া ক্যান্সারে আক্রান্ত, আর্থিক ভাবে সকলেই এগিয়ে আসুন”  «» ইউনানী/হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার-ফার্মাসিস্ট সহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে বিশাল নিয়োগ «» ঢামেকে ব্রাদার ও মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের সংঘর্ষে আহত ২৫ «» আগামী সাতদিন খুবই চ্যালেঞ্জিং : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর «» বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থোপেডিক হাসপাতাল নিটোরের গল্প «» শুকরের চর্বিতে উৎপাদিত তেলে আক্রান্ত হচ্ছে আমাদের হৃদপিণ্ড! «» প্রাকৃতিক উপায়ে এডিস মশা থেকে মুক্তির উপায় «» ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত নতুন রোগী প্রায় ২ হাজার «» স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই হয়েছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী «» এবার ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসক লাঞ্ছিত

রক্ত নেওয়ার সময় এইডসে আক্রান্ত, অন্তঃসত্ত্বাকে চাকরি-ফ্ল্যাট ক্ষতিপূরণ

সরকারি হাসপাতালে অন্তঃসত্ত্বা নারীকে এইচআইভি সংক্রামিত রক্ত দেওয়ার ঘটনায় ওই নারীকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২৫ লাখ টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ভারতের মাদ্রাজের হাইকোর্ট।

গতকাল শুক্রবার দেওয়া এক আদেশে হাইকোর্ট বলেছে, একই সঙ্গে ঘটনার শিকার ওই নারীকে একটি চাকরি এবং সাড়ে ৪০০ বর্গফুটের একটি ফ্ল্যাট দিতে হবে।

ইন্ডিয়া টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সরকারি হাসপাতালের চরম উদাসীনতার কারণে এইচআইভি সংক্রমণের শিকার হয়েছিলেন অন্তঃসত্ত্বা ওই নারী। এ ঘটনায় আত্মীয়-স্বজনরা সরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে মামলা করেন। গতকাল শুক্রবার ওই মামলায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন মাদ্রাজের হাইকোর্ট।

হিন্দুস্থান টাইমস জানিয়েছে, রক্তস্বল্পতার কারণে ২০১৮ সালের তিন ডিসেম্বরে তামিলনাড়ুর শিবকাশীর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল অন্তঃসত্ত্বা ওই নারী। সেখানে ১৯ বছর বয়সী একজন তাকে রক্ত দেন। পাঁচ দিন পর নিজের এইচআইভি পজিটিভ হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন রক্তদাতা। একই সময়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও এ বিষয়ে অবগত হয়।

তবে তখন চিকিৎসকদের আর কিছুই করার ছিল না। ততক্ষণে ওই নারীর শরীরে মিশে গেছে এইচআইভির জীবাণু।

এ ঘটনায় মর্মাহত ওই যুবক ২৫ ডিসেম্বর বিষ পান করেন এবং পাঁচ দিন পর মারা যান।

চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন ঘটনার শিকার ওই নারী। পরীক্ষায় শিশুটির দেহে এইচআইভি নেগেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :