আজ মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:১৪ পূর্বাহ্ন

কাশ্মীরে ক্যান্সার রিসার্চ হাসপাতাল করবে কেন্দ্রীয় সরকার

৩৭০ ধারা বিলুপ্তির পর উন্নয়নকে হাতিয়ার করে কাশ্মীরের সাধারণ নাগরিকদের মন পেতে তৎপর কেন্দ্রীয় সরকার৷ এই লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে সেখানে গড়ে তোলা হবে প্রথম সুপার স্পেশ্যালিটি ক্যান্সার রিসার্চ হাসপাতাল৷ প্রাথমিকভাবে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট এই সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে ক্যান্সারের মতো দুরারোগ্য জটিল রোগের সব পর্যায়ের চিকিৎসা করা হবে৷

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রের খবর, এই হাসপাতাল গঠনের জন্য ইতিমধ্যেই ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ এর মধ্যে ৪৩ কোটি টাকা জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনকে কাজ শুরুর জন্য দিয়েও দেওয়া হয়েছে৷ শনিবার ১৪ সেপ্টেম্বর শ্রীনগরে হাসপাতাল প্রকল্পের শিলান্যাস করেন জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক৷ দেড় বছরের মধ্যে পুরো হাসপাতালটি তৈরি করা সম্ভব হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা৷

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এই হাসপাতালটি তৈরি হয়ে গেলে কাশ্মীরের অধিবাসীদের ক্যান্সারের মতো ব্যয়বহুল চিকিৎসার জন্য বারবার দিল্লিতে আসার প্রয়োজন পড়বে না৷ এক কর্মকর্তা বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরেই ভাবা হচ্ছিল এই প্রকল্পের কথা৷ কিন্তু নানা জটিলতার কারণে তা বাস্তবায়িত করা যায়নি৷ এবার দ্রুত এই কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে৷ চেষ্টা করা হবে এক থেকে দেড় বছরের মধ্যে পুরো হাসপাতালটির পরিষেবা শুরু করে দেওয়ার৷’

এদিকে, সামগ্রিক উন্নয়নের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের মূল লক্ষ্য কাশ্মীরের বিভিন্ন স্তরের জনগণকে দেশের মূল স্রোতের সঙ্গে সংযুক্ত করা৷ এই লক্ষ্যে আয়োজন করা হবে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের, যেখানে প্রাধান্য পাবেন উপত্যকার প্রতিভাধর নবীন প্রজন্মের প্রতিনিধিরা৷ দেশের জাতীয়তাবোধের উন্মেষের সঙ্গে জড়িত সব অনুষ্ঠানে যাতে কাশ্মীরের সবাই অংশ গ্রহণ করেন, তা নিশ্চিত করতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার৷

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :