আজ সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন,

ইন্টারনেট প্যাকেজের সর্বনিম্ন মেয়াদ ৩ দিন

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে মোবাইল ফোন অপারেটররা ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ তিন দিনের কম রাখতে পারবেন না বলে নির্দেশনা জারি করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। সম্প্রতি বিটিআরসির পক্ষ থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

রোববার (২৭ জানুয়ারি) সংস্থাটি জানিয়েছে, আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ইন্টারনেট ও ভয়েস কলের ক্ষেত্রে সব প্রকার প্যাকেজ, অফার বা বান্ডেলের মেয়াদ হবে ন্যূনতম তিন দিন। অবশ্য নতুন নির্দেশনায় সর্বোচ্চ মেয়াদ নিয়ে কিছু বলেনি বিটিআরসি।

এর আগে গত মাসের শুরুতে মোবাইল অপারেটরগুলোকে দেয়া এক নির্দেশনায় বিটিআরসি প্যাকেজের সর্বনিম্ন মেয়াদ ৭ দিন করার নির্দেশ দিয়েছিল। একই নির্দেশনায় প্যাকেজের সর্বোচ্চ মেয়াদ নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩০ দিন।

সংস্থাটি ২৪ জানুয়ারি নতুন এই নির্দেশনা জারি করে। এতে বলা হয়েছে, একজন গ্রাহক ‘পে পার ইউজ’ প্রক্রিয়ায় সর্বোচ্চ ৫ টাকার ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। নির্ধারিত সীমা অতিক্রান্ত হলে তাকে প্যাকেজ কিনতে হবে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু বা অটো-রিনিউ অপশন চালু থাকলে মেয়াদ বা পরিমাণ উত্তীর্ণ হওয়ার পরই প্যাকেজটি নতুন করে চালু হয়ে যাবে। রোববার থেকে এই দুই নির্দেশনা চালু হওয়ার কথা।

বিটিআরসি গত মাসে যে নির্দেশনা জারি করেছিল, তা নিয়ে আপত্তি জানায় মোবাইল অপারেটরগুলোর। তাদের দাবি, তাদের আয়ের একটি বড় উৎস স্বল্পমেয়াদী প্যাকেজ। এরপর বিটিআরসির সঙ্গে মোবাইল অপারেটরগুলোর বৈঠক হয়।

বিটিআরসির কর্মকর্তারা গত ১৬ জানুয়ারি সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে জানান, ২৭ জানুয়ারির পর থেকে ৭ দিনের কম মেয়াদের কোনো ইন্টারনেট প্যাকেজ থাকবে না। এর আগের নির্দেশনায় প্যাকেজের পরিমাণ কমিয়ে ৩৫টিতে নামিয়ে আনতে বলা হয়েছিল। নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্যাকেজের সংখ্যা নিয়ে পরে নির্দেশনা জারি করা হবে।

আরও পড়ুন :  অনলাইনে অ্যাজমার চিকিৎসাসেবা

আপনার মন্তব্য লিখুন :

আরও পড়ুন :

সংবাদটি শেয়ার করুন :