আজ সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন,

গাজীপুরে নার্সের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় মুক্তি রানী দাস (৩৫) নামের এক নার্সের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী রনি দাসকে পুলিশ আটক করেছে। শনিবার (২ মার্চ) সন্ধ্যায় স্বামীর বাড়ি থেকে পুলিশ মুক্তি রানী দাসের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আবু বকর মিয়া বলেন, সকালে স্বামীর বাড়ি থেকে মুক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের শরীরের একাধিক স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশটি ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত ছিল। ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা ময়নাতদন্তের পর বলা যাবে।

মুক্তি রানী দাস কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরীর উলুখোলা গ্রামের গোপাল চন্দ্র দাসের মেয়ে। তিনি কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নার্স হিসেবে কর্মকর্ত ছিলেন। দিতি দাস নামে তাদের ২ বছরের একটি কন্যা সস্তান রয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা ছাদেকুর রহমান আকন্দ বলেন, মুক্তি রানী কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন দক্ষ নার্স ছিলেন।

নিহতের  বাবা গোপাল চন্দ্র দাস বলেন, মুক্তি রানী দাসকে মারধর করে হত্যার পর ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দিয়ে ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র করছে স্বামীর বাড়ির লোকজন।

নিহতের বড়ভাই জয়ন্ত চন্দ্র দাস বলেন, সাত বছর আগে স্থানীয় ধরনী চন্দ্র দাসের ছেলে রনী চন্দ্র দাসের সঙ্গে মুক্তি রানীর বিয়ে। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই শুরু হয় তার ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন। মৃত্যুর আগেও মুক্তি একাধিকবার তাকে নির্যাতন করার কথা বলেছেন।

আরও পড়ুন :  খুলনায় চালু হচ্ছে মানববর্জ্য শোধনাগার: উৎপাদিত হবে কম্পোস্ট ও মাছের খাদ্য

আপনার মন্তব্য লিখুন :

আরও পড়ুন :

সংবাদটি শেয়ার করুন :