আজ সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১০:১০ পূর্বাহ্ন,

ব্রেইন টিউমার অপারেশনে ক্রিকেটার রুবেল সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন বৃহস্পতিবার

ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত জাতীয় ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেল অস্ত্রোপচার করাতে বৃহস্পতিবার সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন। মঙ্গলবার রাতে তিনি নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

কিছুদিন ধরে মাথায় নানা সমস্যা অনুভব করছিলেন মোশাররফ। গত কয়েকদিন আগে রাজধানীর এক হাসাপাতালে এমআরআই  করে জানতে পারলেন, মস্তিষ্কে টিউমার আছে। চিকিৎসকরা পরামর্শ দিয়েছেন দ্রুত অস্ত্রোপচার করে ফেলতে। মোশাররফ এ অপারেশন  সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসাপাতালে করানো হবে।

সিঙ্গাপুরে যাওয়ার আগে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। একইসঙ্গে দুঃসময়ে পাশে থাকার জন্য অনেকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুকে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্ট দিয়েছেন রুবেল। পোস্টটি পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরা হলো-

‘প্রিয় দেশবাসী, অস্ত্রোপচার করাতে আগামী পরশু (শুক্রবার) আমি সিঙ্গাপুর যাচ্ছি, ইনশাআল্লাহ। এই সময়ে সব ফোন কল ধরা কঠিন। সেজন্য আমি দুঃখিত। শুধু একটা কথা বলতে চাই, আমি যে সবার কাছ থেকে দোয়া আর ভালোবাসা পেয়েছি, সে কারণে আমি আপ্লুত। চিরঋণী হয়ে গেলাম। কীভাবে এই ঋণ শোধ করব জানি না।

শুধু ছোট্ট ধন্যবাদ দিতে চাই সাকিব, তামিম, মাশরাফি, রিয়াদ, বিজয়, রিংকু, তারেক ভাই, এনাম, রাজ্জাক, মার্শাল, সোহান, শুভ, হুমায়ুন, শাহিন, দিহান, শাহ আলম ভাই, আকরাম ভাই, সুমন ভাই, দুর্জয় ভাই, নান্নু ভাই, সুজন ভাই, শোভন ভাই, মঞ্জু ভাই, হাসান ভাই, দেবু দা, এনাম ভাই, নাফিজা আপু, সালাউদ্দিন স্যার, ইমরান স্যার, ফাহিম স্যার, বাবু ভাই, হৃদয়, আমার পরিবার, আমার স্ত্রীর পরিবার, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, খুলনা টাইটান্স, গাজী গ্রুপ, ওয়ালটন, ব্যাংক এশিয়া, জাহিদ চৌধুরী, মিনহাজ, শাহিন ভাই, শাকিল, বিকেএসপি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধু এবং অবশ্যই আমার ছেলে ম্যাক্সওয়েলকে।

আরও পড়ুন :  মাংসপেশিতে আঘাত পেলে

হয়তোবা অনেক ইমপরটেন্ট নাম মিস হয়ে গেছে। সারাদিন লিখলেও হয়তো শেষ করা যাবে না। সবার দোয়ায় ইনশাআল্লাহ আবার সবার মাঝে ফিরে আসব। অন্তরের অন্তস্থল থেকে সবাইকে আমার ভালোবাসা জানাই।’

তাঁর আশা, সফল অস্ত্রোপচার হলে সুস্থ হয়ে উঠবেন দ্রুতই, ‘অস্ত্রোপচার করতে হবে। দেরি করা যাবে না। দেশের বাইরে করাতে চাই। ভিসাপ্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছি। দুই-তিন লাগবে। ভিসা হলেই চলে যাব। এটা প্রাথমিক পর্যায়ে আছে, এটি একটু আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে। খবরটা শুনে পরিবারের সবাই ধাক্কা খেয়েছিল। এখন একটু সাহস পাচ্ছে।’

আপনার মন্তব্য লিখুন :

আরও পড়ুন :

সংবাদটি শেয়ার করুন :