আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৪২ অপরাহ্ন

বিশ্বে এই প্রথম কিডনি দিলেন এইডস আক্রান্ত রোগী

বিশ্বে এই প্রথমবার কিডনি দিলেন কোন এইচআইভি এইডস আক্রান্ত জীবিত রোগী। গত সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারিল্যান্ড রাজ্যের বাল্টিমোরে অবস্থিত জন হপকিন্স হাসপাতালে সফল অপারেশনের মাধ্যমে একজন এইচআইভি পজেটিভ রোগীর শরীর থেকে কিডনি প্রতিস্থাপন করলেন মার্কিন চিকিৎসকরা। অস্ত্রোপচারটি হওয়ার পর দাতা ও গ্রহীতা দুজনই সুস্থ আছেন। বিবিসি

অস্ত্রোপচারে যুক্ত ডা. ডোরি সেজেভ এক বিবৃতিতে বলেন, বিশ্বে এই প্রথমবারের মতো জীবিত কোনো এইচআইভি রোগীকে কিডনি দানের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এর পূর্বে মনে করা হতো এইচআইভি পজিটিভ একজন কখনও কিডনিদাতা হতে পারবে না। কারণ এতে গ্রহীতা ব্যক্তি মারাত্মক ঝুঁকিতে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। কিন্তু এমন একটি ওষুধ তৈরি হয়েছে, যা ব্যবহারে এইচআইভি আক্রান্ত ব্যক্তির কিডনি নিরাপদ থাকে এবং তা স্থানান্তরেও কোনো ঝুঁকি থাকে না।

এইচআইভি আক্রান্ত রোগী ও কিডনি দানকারী ব্যাক্তিটি হলেন আটলান্টার অধিবাসী নিনা মার্টিনেজ (৩৫)।

কিডনি দান করার প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, খুব ভালো লাগছে। এ ধরনের ঘটনায় প্রথম হতে পেরে তিনি খুবই আনন্দিত। আমি জানি, আমি এমন একজন—যার জন্য তাঁরা (চিকিৎসকেরা) অপেক্ষা করছিলেন। যে কেউ এই যাত্রায় অংশ নেওয়ার জন্য বিবেচিত হতে পারেন, এটা সম্ভব।

চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি ধারাবাহিক নাটক ‘গ্রে’স অ্যানাটমি’ দেখে তিনি কিডনি দান করতে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন নিনা মার্টিনেজ।

জনস হপকিন্স হাসপাতালের মেডিসিন ও অনকোলজি বিভাগের প্রফেসর ক্রিস্টিন ডুরান্ড বলেন, চূড়ান্ত প্রতিবেদন পেতে তাদের দীর্ঘ সময় পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। আমরা দীর্ঘ মেয়াদে এর ফলাফল দেখতে নজরদারি রাখব।

আরও পড়ুন :  অস্বাস্থ্যকর বাতাস গ্রহণ করছে বিশ্বের ৯৫ শতাংশ মানুষ

তিনি বলেন, উন্নত ও অত্যাধুনিক ওষুধ তৈরি হওয়া সত্ত্বেও মানুষকে এটি বোঝানো কঠিন যে, কিডনির ক্ষেত্রে এইচআইভি রোগ অনেকটাই ভিন্ন। সোমবারের অপারেশনের পর উভয়ই সন্তুষ্ট ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন :

আরও পড়ুন :

সংবাদটি শেয়ার করুন :