আজ বৃহস্পতিবার, ২০ Jun ২০১৯, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
«» ” উৎসর্গ ফাউন্ডেশন, শ্যামলী ম্যাটস শাখার পক্ষ থেকে আর্থিক সহযোগিতা “ «» “উৎসর্গ ফাউন্ডেশ, বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবী মিলনমেলা রেজিস্ট্রেশনের শেষ তারিখ ৩০শে জুন “ «» ব্যথানাশক ঔষুধ ছাড়াই বিকল্প ম্যাজিক পেইন কিলার! «» বাংলাদেশের বাজারে মেয়াদোত্তীর্ণ সব ওষুধ এক মাসের মধ্যে ধ্বংস করার আদেশ দিয়েছে আদালত «» নিজের চেম্বার নেই : রকে বসে প্রতিদিন শত রোগী দেখেন গরীবের ডাক্তার «» আমি এসেছি বাংলাদেশ থেকে বিদেশে রোগী যাওয়া বন্ধ করতে : ডা. দেবী শেঠী «» চিকিৎসকদের সুরক্ষায় কড়া আইন করছে ভারত : হাসপাতালে বিশেষ নিরাপত্তাবলয় «» রেশম দিয়ে কৃত্রিম ধমনি : যুগান্তকারী আবিষ্কার বাঙালি চিকিৎসক-গবেষকদের «» নিজের টাকায় শিশুদের জীবন দান করা ডা. কফিল খান বকেয়া বেতনও পাচ্ছেন না «» ডাক্তারদের আত্মরক্ষা আন্দোলনের জেরে হাসপাতালগুলো এবার পুলিশি সুরক্ষা পেল

যাত্রীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে রেলওয়ে হাসপাতাল

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে নাড়ির টানে ঢাকা ছাড়ছেন রাজধানীবাসী। স্বাভাবিক সময়ে চেয়ে ঈদ যাত্রায় যাত্রীর সংখ্যা বহুগুণ হওয়ায় প্রচন্ড ভিড়ে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। তবে, তাদের জন্য কোন ভয় নেই। যাত্রা পথে কেউ অসুস্থতাবোধ করলে সাথে সাথেই মিলছে চিকিৎসা সেবা। বাংলাদেশ রেলওয়ে মেডিকেল বিভাগে উদ্যোগে চিকিৎসকদের কয়েকটি বিশেষজ্ঞ টিম এ সেবা প্রদান করছে।

গত ৩১ মে থেকে শুরু হওয়া এ মেডিকেল ক্যাম্প চলবে আগামী ৪ জুন পর্যন্ত। এবারের ঈদুল ফিতরে বাড়ি ফেরা মানুষকে সেবা দিতে পাঁচ দিনব্যাপী বিশেষ মেডিকেল ক্যাম্প করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতাল।

বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতালের অতিরিক্ত বিভাগীয় চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. তুহিন বিনতে হালিম মেডিভয়েসকে বলেন,  আমরা গতকাল থেকে এ সেবাটা শুরু করেছি। এটা চলবে আগামী ৪ তারিখ পর্যন্ত। প্রতি বছরই আমরা ৩ দিনের মেডিকেল ক্যাম্প করে থাকি। তবে এবার এ সেবাটা আমরা ৫ দিন পর্যন্ত বাড়িয়েছি। বাড়ি ফেরার সময় পথিমধ্যে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসা সেবা পান না। এটি অনুভব করেই আমরা এ সেবা দিচ্ছি। শুধুমাত্র মানবিক দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা এ উদ্যাগ নিয়েছি। এবং আগামী দিনেও আমাদের এ কার্যক্রম চলবে।

তিনি বলেন, গতকাল এ যাত্রী স্টেশনে রিকশা থেকে নামার সময় একটা মেয়ের ব্যাগ ধরে চিনতাইকারী টান দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়, মেয়েটি তখন রিকশা থেকে পরে গিয়ে আহত হয়। তারপর তাৎক্ষণিক আমরা তাকে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা দেই। এভাবে প্রতিদিনই কিছু না কিছু ঘটছে, আর আমরা তাদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি। এভাবে ভোর ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছি।

ঈদের পরে আবার যাত্রীরা বাড়ি থেকে আসবে তখনও কি এ সেবা অব্যাহত থাকবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. তুহিন বলেন, আমাদের ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও ঈদের পরে আর হয়ে উঠে না। এটা তো শুধু ডাক্তারের কাজ নয়। আনুসঙ্গিক আরও অনেক কিছুর প্রয়োজন হয়, সেগুলোর অনুপস্থিতির কারণে আর হয়ে উঠে না।

শুধু বিমানবন্দর রেলস্টেশন নয়, দেশের সবক’টি বড় স্টেশনে মেডিকেল ক্যাম্প বসিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতাল। ঈদের আগের পাঁচ দিন এ সেবা ও বিনামূল্যে ওষুধ দেওয়া হবে বলেও জানান রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

আপনার মন্তব্য লিখুন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :